মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:৩৭ পূর্বাহ্ন

যশোরের বাঁকড়া দিগদানায় প্রতিবন্ধিকে কেন্দ্র করে মারামারি! ? Matrijagat TV

 বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম শনিবার, ২৮ মার্চ, ২০২০

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া ইউনিয়নের দিগদানা গ্রামে বেড়া (রেলিং) ঝাকানোকে কেন্দ্র করে এক প্রতিবন্ধিকে মারপিট করতে থাকলে ঐ সময় ক্রিকেট খেলার মাঠে ক্রিকেট খেলা রত অবস্থায় আরিফ (২৮) নামের এক যুবক প্রতিবন্ধির মারির প্রতিবাদ করতে গেলে ঐ সময় আরিফ ও জুয়েল (২০) রুবেলের সাথে ধাক্কা ধাক্কি হয়, জুয়েল ও রুবেল শাশিয়ে যায় বাজারে বুঝাপড়া করবে তার (আরিফের) সাথে।

পরে সন্ধ্যায় দিকদানা বাজারে গেলে মোঃ জহিরুল ইসলাম জহির (৫০) পিতা মৃত করিমবক্স দ্বারা গঠিত বাহিনী, (প্রকাশ থাকে যে জহির মশিয়ার মাডার কেচের ১ নং আসামী ) রুবেল বাহিনীর হোসেন আলী (৩৫) ইমান আলী (৪০) আমির আলী (৫৫) পিতা (উভয়ই) করিম গাজী। তারা তাদের দল বল নিয়ে আরিফকে চাইনিছ কুড়াল দিয়ে মাথায় আঘাত করে, ও রড (শাবল) দিয়ে আঘাত করার পর সে (আরিফ) পড়ে গেলেও এলোপাতাড়ি ভাবে মারপিট করতে থাকে। মার দেখে মনি,রাশেদ আসলেও তাদের ও এলোপাতাড়ি মারপিট করে আমি (আরিফ) এক সময় জ্ঞান হারিয়ে ফেলি, তারা আহত হলে তাদেরকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।প্রকাশ থাকে যে এই ঘটনায় আরিফের অবস্থা গুরুতর। গত (২৩-০৩-২০২০ ইং ) তারিখ সোমবার বিকালে ও সন্ধ্যায় দিগদানা খোশালনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে ও বাজারে এই ঘটনা ঘটে। এ সময় খোশালনগর গ্রামের দর্শক জুয়েল গালিগালাচ করে।

এতে খেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য আরিফ গালাগালি করতে নিষেধ করে। জুয়েল আরো বেশি ক্ষিপ্ত হয়ে গালিগালাচ করে। খেলা শেষে আরিফ ও তার বন্ধুরা দিগদানা বাজারের আব্দুল লতিফের দোকানে মিষ্টি খাচ্ছিল। তখন জুয়েলের পিতা হাসেম আলী ও চাচা ঈমান আলী তাকে মারপিট করে । ও আরিফের গলায় থাকা স্বর্নের চেন ও জনতা ব্যাংক বাঁকড়া শাখা থেকে উত্তোলন করে মাটিকাটা শ্রমিকের টাকা দেওয়ার জন্য ২০,০০০/= (বিশ হাজার ) টাকা উত্তলন করে নিয়ে আসা টাকা, সেই টাকা আরিফের পকেট থেকে জোর করে ছিনিয়ে নিয়াছে ঐ সন্ত্রাসীরা।

বাঁকড়া বাজারের পল্লী চিকিৎসক ডাঃ শাহ আলম সাময়িক চিকিৎসা প্রদান করে পরে যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট (সদর) হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। পরে আরিফ ও তার বাবা জানতে চাইলে সাংবাদিকদের এ সব কথা জানান। আরও বলেন আমাদের এখন হুমকি দিচ্ছে ও তাদের অস্ত্র ও নাকি আমাদের মারার জন্য রেডি করা আছে। আরও বলেন যে আমরা ঝিকরগাছা থানায় কয়েকজনকে আসামি করে এই ব্যপারে মামলা ও করেছি। এই ঘটনা সম্পর্কে মোঃ জহিরুল ইসলাম (জহির) এর নিকট মোবাইলে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকের সাথে এই ব্যপারে কথা বলতে ইচ্ছুক নহে।বলেন যাহা বলার ১১নং বাঁকড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বলবেন বলে জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © Matrijagat TV
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
matv2425802581