মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:১৩ পূর্বাহ্ন

শরীয়তপুরের জাজিরা পৌরসভা যেন এক ইতিহাস রচনা করলো তরুন জননেতা

 নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
  • আপডেট টাইম শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

জনাব ইদ্রিস মাদবর,গত ৩০ জানুয়ারী জাজিরা পৌরসভার নির্বাচনে নৌকা মার্কার বিপক্ষে মোবাইল মার্কা নিয়ে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত হয়েছেন ইদ্রিস মাদবর।বিগত ২ টি পৌর নির্বাচনে জাজিরা পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর নির্বাচন করে টানা ২ বার জয়যুক্ত হয়েছিলেন তিনি। এবার মেয়র নির্বাচন করে জানিয়ে দিলেন পরাজয় তার জীবনে লেখা নেই, কারন জনগণের ভালোবাসা আর সৃষ্টি কর্তার রহমত তার সাথে ছিলো এবং আছে এটাই তার বড় প্রমান। এলাকায় রয়েছে তার সুনাম অর্জন কোথাও তার কোন বদনাম নেই জনগণ তাই তাকে ভালোবেসে মেয়র নির্বাচিত করেছেন এমনটাই জানিয়েছেন এলাকাবাসী। জাজিরা পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হয়ে সেও এলাকায় ঘুরে ঘুরে খোঁজ খবর নেওয়া শুরু করেছেন মানুষের ভালো মন্দের, এ যেন জাজিরা পৌরবাসীর নতুন এক যুদ্ধ জয়,কারন হিসেবে জানিয়েছেন বিগদ দিনে নির্বাচন হলে জনগণ ভোট দিতে পারতো না ভোটার গিয়ে দেখতো তার ভোট হয়ে গেছে, ভোটের অদিকার ফিরে পেতে এবং ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে মাঠে নেমেছিলো জনগন এবং নবনির্বাচিত মেয়র ইদ্রিস মাদবর,,তাদের দাবি পুরন হয়েছে এবং ভোটের অধিকার ফিরে পেয়েছে জনগন, পৌরবাসী জানায় বিগত দিনে এতো সুন্দর এবং সুষ্ঠু নির্বাচন কখনো জাজিরা হয়নি,প্রশাসনের ভুমিকাও ছিলো বেশ ভালো,নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে তারা যথেষ্ট সচেতন ছিলো তাই প্রশাসন কে ধন্যবাদ জানিয়েছে জাজিরা পৌরসভার সকল জনগণ। সাধারণ মানুষ আরো জানান জাজিরা কখনো নৌকা পরাজিত হয়নি বিগত দিনে এবার হবার কারন হিসেবে জানায়, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী অধ্যাপক আব্দুল হক কবিরাজ মনোনয়ন পাওয়ার পর সে একটু জনগণ কে অবহেলার নজরে দেখতে শুরু করে এবং নির্বাচনি প্রচারনা তো দুরে থাক ভোটারদের কাছেও যায়নি।সে মনে করেছিলো মনোনয়ন পেয়েই মেয়র হয়ে গেছে, জনগণ যখন সবাই ভালোবাসার মানুষ ইদ্রিস মাদবের আচার-আচরণ বিচার করে সবাই তার জন্য মাঠে নেমে পরে, তখন অধ্যাপক আবদুল হক কবিরাজ ভোট চাইতে দারে দারে আসে, এসে যখন বুজতে পারে তার অবস্থা ভালো না তখন শুরু করে তার গুন্ডা বাহিনী দিয়ে না না ভাবে নির্বাচন থেকে বিতারিত করতে ইদ্রিস মাদবর কে।ইদ্রিস মাদবর সাব জানিয়ে দেয় জীবন চলে যাবে তবুও জনগের পাশে থাকবে কোন শক্তি তাকে নির্বাচন থেকে হটাতে পারবে না। তার পর জাজিরা থানা ছাত্র লীগের নাম ধারি নেতা রুবেল বেপারী সহ সকল গুন্ডা বাহিনী লাগিয়ে দেয় তার বিরুদ্ধে, রুবেল বেপারী নৌকার মিছিলে বোমা মেরে আবার তারাই যায় জাজিরা থানায় ইদ্রিস মাদবের বিরুদ্ধে মামলা করতে তবে জাজিরা থানার অফিসার ইনচার্জ বিষয় টি গোলমেলে বুঝতে পেরে মামলা না নিয়ে আগে তদন্ত করার কথা বললে তারা পিছিয়ে যায়।অবশেষে ৩০ জানুয়ারী জনাব ইদ্রিস মাদবর জনগণের ভালোবাসয় জয়যুক্ত হয়ে বিজয়ের মালা পরেন,,এবং সুখে দুঃখে জনগণের পাশে থাকবে এই আশা ব্যাক্ত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
টিভি চ্যানেল
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
matv2425802581