শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০১:২১ অপরাহ্ন

যশোর অভয়নগরে সেই অস্ত্র উদ্ধারের রহস্য উম্মোচন করেছেন থানা পুলিশ! 📺 Matrijagat TV

 আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার, যশোর
  • আপডেট টাইম সোমবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

১০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার।। যশোরের অভয়নগরে সেই অস্ত্র উদ্ধারের রহস্য উম্মোচন করেছে অভয়নগর থানা পুলিশ ও যশোর জেলা ডিবি পুলিশ। যৌথভাবে কাজ করে তারা এ অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনার রহস্য উম্মোচন করেছে সেই সাথে এ সন্ত্রাসী গ্রুপ সম্পর্কে উদঘাটন করেছে ভয়াবহ তথ্য। পুলিশের দেয়া তথ্য মতে, চরমপন্থী পরিচয় এ সন্ত্রাসী গ্রুপ দীর্ঘ দিন যাবৎ অভয়নগর ও মণিরামপুর উপজেলার ঘের ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে চাঁদাবাজী করে আসছিলো। আদিত্য ও হিরামণ গ্রুপ নামে এ সন্ত্রাসী গ্রুপের হাতে রয়েছে বেশ কিছু আগ্নেয়াস্ত্র।

এই আগ্নেয়াস্ত্রকে পুঁজি করেই তারা চাঁদাবাজী চালিয়ে আসছিলো। আর তাদের এ আগ্নেয়াস্ত্র সরবরাহসহ সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের কলকাঠি নেড়ে আসছে ভারতে বসবাসরত দীপংকর নামে জনৈক ব্যক্তি। সম্প্রতি দীপংকরের সাথে আদিত্যের মণোমালিন্যকে কেন্দ্র করে একচ্ছ্বত্র আধিপত্য বিস্তার করতে জাল ফেলে দীপংকর। আর তার সহযোগি হিসেবে বেছে নেয় হিরামণ ও কুমারেশ নামে গ্রুপের দুই সদস্যকে। আদিত্যকে ফাঁসিয়ে একক আধিপত্য বিস্তারের জন্য কুমারেশকে দিয়ে আদিত্যের বাড়ির ধানের গোলায় অস্ত্র রেখে আসে কুরাশে। আর এ কাজে তাকে সহযোগিতা করে হিরামণ। পরে পুলিশ ওই ধানের গোলা থেকে ১টি ওয়ান শুটারগান, ১টি রিভলবার, ২ রাউন্ড কার্তুজসহ দুই সন্ত্রাসীকে আটক করে। আটককৃতরা হলো, যশোরের অভয়নগর উপজেলার আন্দা গ্রামের সমার মল্লিকের ছেলে কুমারেশ মল্লিক, জগদীশ শিকদারের ছেলে হীরামনী শিকদার। রবিবার দুপুরে যশোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) তৌহিদুল ইসলাম এ তথ্য জানান। এছাড়া সম্প্রতি মণিরামপুর উপজেলায় দুই ঘের মালিককে গুলি করার ঘটনায় সংশ্লিষ্ঠতার অভিযোগে আদিত্য রায়কে আটক করে কারাগারে পাঠায়। সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার উল্লেখ করেন, কুমারেশের আটকের পর তার দেখানো মতে, শনিবার ভোরে অভয়নগর উপজেলার আন্দা গ্রামের আদিত্য রায়ের বাড়ির ধানের গোলা ভিতর থেকে ১টি ওয়ান শুটারগ্যান, ১টি রিভলবার ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

পরে তার স্বীকারোক্তিতে হীরামনকে বাড়ি থেকে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা পুলিশকে জানিয়েছে, আন্দা গ্রামের আদিত্য ও দিপংকর প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসী গ্রুপ। চরমপন্থি সংগঠনের নেতা প্রশান্ত ওরফে প্রো মারা যাওয়ার পর অভয়নগরের দিপংকর বাংলাদেশ ও ভারতের সীমান্তে অবস্থান করে নিউ বিপ্লবী কমিউনিস্ট চরমপন্থি সংগঠনের পরিচয় দিয়ে এলাকার মাছের ঘের দখলসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও চাঁদাবাজি করে আসছে। ১ ফেব্রুয়ারি মণিরামপুরের সমলডাঙ্গা বিলের মনিরুজ্জামান গংদের উপর সশস্ত্র হামলা চালায় দিপংকর বাহিনী। এ ঘটনায় সন্ত্রাসী দেবু সরকার গ্রুপের ৬জনকে পুলিশ আটক করে। এভাবে দিপংকের প্রতিপক্ষ আদিত্যকে ফাসিয়ে এলাকায় একক আধিপাত্য বিস্তারের জন্য তার সহযোগি কুমারেশের মাধ্যমে আদিত্যের বাসায় অস্ত্রগুলি রাখে।

যশোরে অভয়নগর ও মণিরামপুর থানা এলাকার ডিবি পুলিশ ও অভয়নগর থানা পুলিশ যৌথ ভাবে অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে আটক করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে যশোর ডিবি পুলিশের ওসি মারুফ আহম্মেদ, রির্জাভ অফিস ইন্সপেক্টর মসিউর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © Matrijagat TV
Developed BY Matrijagat TV
matv2425802581