শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:২৭ অপরাহ্ন

মির্জাপুর বাঁশতৈল ভাই ভাই জমি নিয়ে বিরোধ, ফলে রাস্তায় বেড়া! 📺 মাতৃজগত টিভি

মাসুদ পারভেজ, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :
  • আপডেট টাইম সোমবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২০

ভাইয়ের সাথে জমি নিয়ে বিরোধের ফলে রাস্তায় বেড়া দিয়েছে টাঙ্গাইল মির্জাপুর বাঁশতৈল তক্তারচালা গ্রামীন টাওয়ার হতে উত্তর পেকুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাস্তায় এবং একই রাস্তা হতে বাংলাবাজারের দিকে যে রাস্তা গিয়েছে সেখানে একটি ঘরও তুলেছে। গ্রামীন টাওয়ার হতে সামনেই প্রায় সাত মাস আগে রাস্তায় বেড়া দিয়েছে সবুর আমিন, পিতা: অসীম উদ্দিন ।

এলাকাবাসী খুলে দিতে বললেও খোলেনি সে বেড়া ।পরবর্তীতে একই এলাকার বাসিন্দা আহাদ উল্লাহ, পিতা: মৃত গাজী মেম্বার রাস্তায় বেড়া দেন, যে রাস্তাটি বাংলা বাজারের দিকে গেছে ।পরবর্তীতে সবুর আমিন তার বেরা না খুলে পাশ দিয়ে রাস্তা দেন, তারপর আহাদুল্লাহ বাংলা বাজারের দিকে যে রাস্তা গেছে ওই রাস্তায় ঘর তুলেন এবং পাশ দিয়ে হাটার রাস্তা দেন। আহাদ উল্লাহ ও সবুর আমিন চাচা ভাতিজা ।সরেজমিনে গিয়ে উক্ত বিষয়গুলো দেখতে পাওয়া যায় ।

আহাদ উল্লাহ ও আবু সাঈদ দুইজন আপন ভাই ।বাংলা বাজারের দিকে যে রাস্তা গেছে উক্ত রাস্তাটি আহাদ উল্লাহর ব্যাক্তিগত জমি, দাবি আহাদ উল্লাহর।

ড়আহাদ উল্লাহ বলেন, এই রাস্তাটি আমাদের দুই ভাইয়ের জমি দেয়ার কথা কিন্তু আবু সাঈদ তা দেয় নাই কারণ ওর সব জমি বিক্রি করে ফেলেছে, তাই আমার এই জমি দিয়ে রাস্তা দেবো না। তিনি আরো বলেন, আমি গ্রামীণ টাওয়ার হতে উত্তর পেকুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত যে মূল রাস্তা গিয়াছে উক্ত রাস্তার পরিমাণ এক কিলোমিটার যার ৯০০ ফিট জমি আমি দিয়েছি।বাংলাবাজার দিকে রাস্তার জমি দিতে পারব না। আহাদ উল্লাহ দাবি, সে তার ভাই আবু সাঈদ এর কাছে জমি পাবে কিন্তু আবু সাঈদ বুঝিয়ে দিতেছে না। আহাদ উল্লাহ দাবি জানান তার ভাইয়ের কাছে, আমি আমার জমি ফেরত চাই এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি, এটার মীমাংসা চাই ।আরো জানান এই বিষয় নিয়ে কয়েকবার শালিশ বসা হয়েছে কোন সমাধান হয় নাই।

আবু সাঈদ এর কাছে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, বাংলাবাজারের দিকে যে রাস্তা গেছে এই রাস্তায় প্রতিদিন ৫০থেকে ৭০ জন লোক চলাচল করে, এই রাস্তা প্রয়োজন ।তিনি আরো জানান, এ রাস্তা আমার নিজের চার লক্ষ টাকা দিয়ে করেছি তাহলে কেন এ রাস্তা বন্ধ করবে,প্রশ্ন আবু সাঈদের ।তিনি আরো বলেন, এই রাস্তা কয়েকবার বন্ধ করেছে তারপর ও আবার খুলে দেওয়া হয়েছে, শেষবার ঘর তুলছে ।

এলাকার কিছু মানুষের দাবী বাংলাবাজারের রাস্তা করে দেয়ার আবার অধিকাংশ মানুষই জানান গ্রামীন টাওয়ার হতে উত্তর পেকুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাস্তাটি মূল রাস্তা।

আহাদ উল্লাহ আরো জানান, আমার জমির উপর দিয়ে আমি দু দিকে রাস্তা দেব না এবং আমি মুল রাস্তাটি দিয়েছি ।
সর্বশেষ, সবার এক দাবী, উক্ত বিষয়গুলোর সুষ্ঠু সমাধান চান, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট।

সর্বশেষ এ বিষয়ে ১৩ নং বাঁশতৈল ইউপি সদস্য ও উক্ত এলাকার মেম্বার জুনাব আলীর সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না, তাদের কাছেই জিজ্ঞাসা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © Matrijagat TV
Developed BY Matrijagat TV
matv2425802581