শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১০:০৭ অপরাহ্ন

নবীনগরে নদী দূষণ, ভরাট, দখলের প্রতিবাদে মানব বন্ধন

ব্রাক্ষণবাড়িয়ার জেলা প্রতিনিধঃ হেবজুল বাহার,
  • আপডেট টাইম রবিবার, ১৯ জুলাই, ২০২০

ব্রাহ্মনবাড়িয়ার নবীনগরে পৌরসভার বাসা বাড়ির ও বাজারের ময়লা-আর্বজনা ফেলে তিতাস ও বুড়ী নদী দূষণ, দখল, ভরাটের বিরুদ্ধে ” নদী বাঁচাও, নবীনগর বাঁচাও” স্লোগানকে সামনে রেখে ( ১৯/০৭/২০) নবীনগরের সর্বস্তরের জনগণের উদ্যোগে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ব্যক্তি বর্গ তিতাস ও বুড়ী নদী খননে অনিয়ম, দুর্নীতি, অবহেলা ও পৌরসভার বাসা-বাড়ির ময়লা – আর্বজনা ফেলে দূষন, দখল ও ভরাটের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করে বক্তব্য প্রদান করেন। সরে জমিনে গিয়ে দেখা যায় পৌরসভার বাসাবাড়ি, দোকান ও বাজারের ময়লা – আর্বজনা ফেলে নদীর তীরে স্তুপ করে ফেলা রাখা হয়েেছ। এতে পানির তোড়ে ভেসে ফসলি জমি ও নদীতে ছড়িয়ে পড়ছে ময়লা – আর্বজনার স্তুপ। এতে দূষন ও ভরাট হচ্ছে তিতাস ও বুড়ী নদী। মানব বন্ধনে অংশ গ্রহনকারি আব্দুল বাতেন সুমন জানান, নবীনগরে পৌরসভার জন্য নির্দিষ্ট ডাম্পিং স্টেশন থাকা সত্ত্বেও কেন নদীতে ফেলা হচ্ছে? দ্রুত এ বিষয়ে মাননীয় এমপি এবাদুল করিম বুলবুল সাহেব ও মাননীয় মেয়র এড. শিব শংকর দাসের দৃষ্টি কামনা করছি। উৎপল গুহ রনি জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ তিতাস ও বুড়ী নদী খননের নামে প্রহসন চলছে। কচ্ছপ গতিতে চলা ড্রেজিংয়ে কোন উপকার পাচ্ছে না নবীনগরবাসী। ফেসবুক স্যাস্টাস ফোরামের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুর রহমান বাদল বলেন, আমাদের নবীনগরবাসীর এখন একটাই দাবি নদী বাঁচান, নবীনগরের সৌন্দর্য বাঁচান। নদী তীরবর্তী অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ করুন। স্থানীয় কৃষক মিরাজ জানান, ময়লা- আর্বজনা ছড়িয়ে ফসলি জমিতে গিয়ে পড়ছে। এতে ফসলি জমি ময়লা – আর্বজনার কারনে ফসল করা কষ্টকর হবে। মানব বন্ধনে এছাড়াওকৃষক, শিক্ষক, শ্রমজীবি সহ সর্ব সাধারণ জনগন একাত্মতা ঘোষণা করে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © Matrijagat TV
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
matv2425802581