রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৪:০০ পূর্বাহ্ন

ছেলে বউয়ের অত‍্যাচারে মা হলো বাড়ী ছাড়া 📺 মাতৃজগত টিভি

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম শনিবার, ৩০ মে, ২০২০

মেহেদি হাসান:

বেনাপোল প্রতিনিধি: শেষ বয়সে মায়ের জাইগা হয়নি ছেলে বউয়ের সংসারে। বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন চলতো মায়ের উপর। তাই বাধ্য হয়ে জীবন বাঁচাতে বাড়ি ছেড়েছে মা। বড় আশা নিয়ে ভারতে ছোট ছেলের কাছে যাওয়ার জন্য বেনাপোলে চেকপোস্ট এসেছেন তিনি। কিন্তু ছোট ছেলেও তাকে নিবেনা বলে ছাপ জানিয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) রাতে বেনাপোল চেকপোস্ট আর্ন্তজাতিক প্যাছেনঞ্জার টার্মিনালে এ মাকে দেখা যায়। দশ দিন ধরে অনাহারে, অর্ধহারে এখানেই তিনি পড়ে আছেন।

মা সুনতি হালদার জানায়, তার দুই ছেলে দুই মেয়ে। বড় ছেলে বাবুল হালদার থাকে বাগেরহাটের মড়লগঞ্জ উপজেলার হলগাপাড়া মহেশপুর গ্রামে আর ছোট ছেলে ও দুই মেয়ে থাকে কলকাতায়। স্বামী নরেল হালদারও থাকে ভারতে আর বাংলাদেশে বড় ছেলের সাথে থাকতেন তিনি। ছেলে বাবুল হালদারের সামনে তার স্ত্রী কথায় কথায় বিভিন্ন ভাবে তাকে শারিরীক নির্যাতন করতো। অবশেষে কষ্ট সইতে না পেরে বাড়ি থেকে পালিয়ে এসেছেন ভারতে ছোট ছেলের কাছে যাবেন বলে। কিন্তু পাসপোর্ট না থাকায় আটকে পড়ে আছেন বেনাপোল চেকপোস্ট প্যাসেঞ্জার টার্মিনালে। 

ছেলের বউ নির্যাতন করলেও পুলিশকে অভিযোগ দেয়নি কেন এমনটি জানতে চাইলে সুনতি হালদার বলেন, এসব কথা বললে পুলিশতো আগে ছেলেকে ধরে নিয়ে যাবে। অনেক কষ্টে তাকে তিনি মানুষ করেছেন। পুলিশ তাকে মারবে আঘাত পড়বে তার কলিজায়। সেটা তিনি দেখতে পারবে না বলে কাউকে বলেনি। 

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ওসি মহাসিন হোসেন জানান, তিনি অফিস যাওয়ার পথে কদিন ধরে দেখছেন ওই বৃদ্ধ নারী প্যাসেঞ্জার টার্মিনালে পড়ে আছেন। কয়েকবার খাবারও কিনে দিয়েছেন। বিষয়টি তিনি পোর্টথানা পুলিশও বন্দর কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছেন। এছাড়া তার পরিবারের সাথেও যোগাযোগের চেষ্টা করছেন বলে জানান তিনি। 

বেনাপোল প্যাসেঞ্জার টার্মিনালের নিরাপত্তা কর্মী আমিরুল ইসলাম জানান, বৃদ্ধ নারীর কষ্টের কথা শুনে তিনি ভারতে তার ছেলের সাথে যোগাযোগ করেছিলেন। কিন্তু তার ছেলে জানিয়েছে মাকে নেওয়া তার পক্ষ্যে সম্ভব না বলে ফোন কেটে দেন। পরে আর যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
টিভি চ্যানেল
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
matv2425802581