বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৫০ পূর্বাহ্ন

চাঁদপুর মতলবে ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের পাকা সড়কের দুপাশে বেড়া নির্মাণ এলাকাবাসীর ক্ষোভ।

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম রবিবার, ২১ জুন, ২০২০

শাহাদাত আনোয়ার মতলব চাঁদপুর বিশেষ প্রতিনিধি :

চাঁদপুর জেলার, মতলব উত্তর উপজেলার ১০নং পূর্ব ফতেপুর ইউনিয়নাধীন ৭নং নং ওয়ার্ড। অত্র এলাকার পার্শ্ববর্তী গ্রামের লোকজনের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদ।পরিষদে বিভিন্ন কাজে বিভিন্ন গ্রামের লোক ইউনিয়ন পরিষদে কাজের জন্য আসে। সেখানে অত্র এলাকায় দেখা যাচ্ছে যে ফতেপুর ঐতিহ্যবাহী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে শুরু করে ইউনিয়ন পরিষদ পর্যন্ত।আবার ইউনিয়ন পরিষদ থেকে শুরু করে নয়াকান্দি বাজার সংলগ্ন চেন্নাই পাকা সড়ক রয়েছে সেখানে কাঠাল বাগান থেকে ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদে আসার পথে পাকা সড়কের দুপাশে এলোপাতালো ভাবে রাস্তার সাথে খসিয়ে বেড়া দেওয়া হয়েছে অভিযোগ পাওয়া গেছে অত্র সড়কের ২০০গজ পর্যন্ত এভাবে রাস্তার দু’পাশে বেড়া দেওয়া হয়েছে এতে করে যাত্রীবাহী মালবাহী গাড়ি ও পরিষদে আসার পথে অনেক লোক হয়রানির শিকার হয় সাধারণ জনগণের খুবই কষ্ট সাধ্য হতে হয় কেননা বড় একটা গাড়ি আসলে রাস্তার দু’পাশে বেলা তখন সাধারণ জনগণ কোথায় দাঁড়াবে,না হয় গাড়ির নিচে পড়বে, না হয় না হয় বেড়ার সাথে ধাক্কা লাগে মরতে হবে। এমনটা আশা করা যায়। বিশেষ সূত্রে জানা যায় ওই এলাকার লোকজনের কাছে থেকে কে বা কাহারা পাকা সড়কের দুই পাশে ঘষিয়ে বেড়া নির্মাণ করেছে অবশেষে জানতে পারলাম এলাকার স্থায়ী ব্যক্তিবর্গের কাছ থেকে। ওই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার পথে বিপদে পড়ছে তার আর্তনাদ!
ফতেপুর পৃর্ব ইউনিয়ন পরিষদ থেকে নয়াকান্দি,লুধুয়া, আমতলা,সুজাতপুর, জাওয়ার জন্য,বা আমতলা লুধুয়া নয়াকান্দির মানুষ ফতেপুর পরিষদে আসার জন্য এই রাস্তাটি অত্যান্ত গুরুত্বপৃর্ন। কিন্তু দুংখের বিষয় হচ্ছে হচ্চে উত্তর ফতেপুর ডুকার প্রথমেই মজুমদার বাড়ির সামনে এই রাস্তাটির বেড়ার আবস্তা খুবই খারাপ,একদম রাস্তার ইটের সাথে বেড়া দেওয়া।আমি গতকাল বাইক নিয়ে আসার সময় ঠিক এই জায়গায় এসে এক মালবাহি পাওয়ার টিলারের মোখামোখি হই, কিন্তু ছাইড দিয়ে আসতে কষ্ট হইছে, আর একটুর জন্য একছিডেন্ট হইনি।
১০নং পূর্ব ফতেপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরী মতলব উত্তর চাঁদপুর। ঘটনার বিষয়টি তাকে মুঠোফোনে জানানো হয়েছে.তিনি বললেন, তোমাদের এই বিষয়টি আমি মাথায় রেখেছি অবশ্যই আমার প্রতি আস্থা রাখো অবশ্যই একটা সমাধান করে দিবে ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান জনাব আজমল হোসেন চৌধুরী।
বিষয়টি তদন্ত করে খুব তারাতারি সমাধান করার আশ্বাস দেন। এতে ফতেপুর বাসি উপকৃত হবো।কারণ পূর্বে থেকেই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস আছে পরিষদে চেয়ারম্যান হওয়া আগের থেকেই, আমাদের ১০ং ফতেপুর গরিব ও দুঃখি মানুষকে সেবা দিয়ে এসেছেন জনাব আজমল চৌধুরী । আশাবাদী ওনার কোন সম্মানের ক্ষতি হবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
টিভি চ্যানেল
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
matv2425802581